শেষ মুহূর্তের প্রচার যুদ্ধে ট্রাম্প-বাইডেন

নির্বাচনী প্রচারণার শেষ মুহূর্তে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং ডেমোক্র্যাট দলীয় প্রতিদ্ব›দ্বী জো বাইডেন দেশটির মধ্য-পশ্চিমাঞ্চলের রাজ্যগুলো চষে বেড়াচ্ছেন। হোয়াইট হাউসের মসনদে বসার দৌড়ে এবারের নির্বাচনে এসব রাজ্য প্রধান চাবিকাঠির ভূমিকা পালন করতে পারে। দেশটির মধ্য-পশ্চিমাঞ্চলের আইওয়াতে আক্রমণাত্মক ভাষায় রিপাবলিকান প্রার্থী ট্রাম্পের সমালোচনা করেছেন। এই রাজ্যে গতবারের নির্বাচনে ১০ পয়েন্ট ব্যবধানে এগিয়ে ছিলেন ট্রাম্প। অন্যদিকে, মিনেসোটায় গিয়ে প্রচারণা চালিয়েছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প; চার বছর আগের নির্বাচনে সামান্য ব্যবধানে ডেমোক্র্যাট দলীয় প্রার্থী হিলারি ক্লিনটন জয় পেয়েছিলেন সেখানে। মঙ্গলবারের সাধারণ নির্বাচনের আগে এখন পর্যন্ত অধিকাংশ জনমত জরিপে প্রেসিডেন্ট হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে রয়েছেন জো বাইডেন। তবে বেশ কিছু অঙ্গরাজ্যের ভোটার কাকে ভোট দেবেন সেবিষয়ে এখনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণ না করায় ট্রাম্প সুবিধাজনক অবস্থানে আছেন বলে ধারণা করা হলেও এসব ভোটার উভয় প্রার্থীকেই ভোট দিতে পারেন অথবা তাদের সিদ্ধান্তও শেষ মুহূর্তে পরিবর্তন আসতে পারে। যুক্তরাষ্ট্রে একশ বছরের ইতিহাসে এবারই প্রথম আগাম ভোটের সর্বোচ্চ রেকর্ড তৈরি হয়েছে। দেশটির এবারের নির্বাচনে অন্তত সাড়ে ৮ কোটি ভোটার আগাম ভোট দিয়েছেন; যাদের মধ্যে অন্তত সাড়ে ৫ কোটি ভোট দিয়েছেন ডাকযোগে। প্রতিদ্বন্দ্বী ডোনাল্ড ট্রাম্পের চেয়ে নির্বাচনী প্রচারণায় গতি বেড়েছে ডেমোক্র্যাট শিবিরের। তবে করোনাভাইরাসের বিধি-নিষেধের কারণে ডেমোক্র্যাট দলীয় জো বাইডেন তার নিজ এলাকা উইলমিংটনের ডেলাওয়ারেই বেশিরভাগ সময় কাটিয়েছেন। নির্বাচনী প্রচারণার শেষ মুহূর্তে এসে শুক্রবার আইওয়া, উইসকনসিন ও মিনেসোটায় অত্যন্ত ব্যস্ত সময় কাটিয়েছেন জো বাইডেন। এর আগে শেষবারের মতো আইওয়াতে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনী প্রচারণা গত জানুয়ারিতে চালিয়েছিলেন জো বাইডেন; সেই সময় তার প্রচারণা কার্যক্রম ভয়াবহ বিপর্যয়ের মধ্যে ছিল। কারণ সেই সময় ডেমোক্র্যাট দলীয় প্রার্থী মনোনয়নের ভোটে হেরে গিয়েছিলেন তিনি। শুক্রবার মিনেসোটা রাজ্যের ফেয়ারগ্রাউন্ডের বাইরে গাড়ি পার্কিংয়ের স্থানে প্রায় ২২ মিনিটের প্রচারণা চালিয়েছেন তিনি। এ সময় ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমর্থকরা গাড়ির হর্ন বাজিয়ে প্রচারণায় ব্যাঘাত ঘটানোর চেষ্টা করেন। জো বাইডেন ট্রাম্প সমর্থকদের উদ্দেশে বলেন, এই ছেলেরা খুব নম্র নয়। তারা ট্রাম্পের মতোই। বাইডেন করোনাভাইরাস মহামারি মোকাবিলায় মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করার আহবান জানানোর সময় আবারও ট্রাম্প সমর্থকরা বিশঙ্খলতা তৈরির চেষ্টা করেন। ডেমোক্র্যাট দলীয় এই প্রার্থী তখন বলেন, কুৎসিত লোকজনের হর্ন বাজানোর মতো এটা কোনও রাজনৈতিক বক্তৃতা নয়। তিনি বলেন, ডোনাল্ড ট্রাম্প সাদা পতাকা উড়িয়েছেন এবং এই ভাইরাসের কাছে আত্মসমর্পন করেছেন। কিন্তু আমেরিকার জনগণ করোনার লড়াইয়ে হাল ছেড়ে দেবে না। তারা, এমনকি আমিও হাল ছাড়বো না। মিনেসোটায় জনমত জরিপে ডোনাল্ড ট্রাম্পের চেয়ে এগিয়ে রয়েছেন জো বাইডেন। বিবিসি, নিউইয়র্ক পোস্ট।

Source link

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here