কুমিল্লায়

 

গত অক্টোবরে সারাদেশে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন ৩৮৩ জন। এই সময়ে আহত হয়েছেন আরও ৬৯৪ জন।

রোড সেফটি ফাউন্ডেশন তাদের এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানিয়ে বলছে, গত এক মাসে সড়কে দুর্ঘটনা ঘটনা ঘটেছে ৩১৪টি। নিহত ৩৮৩ জনের মধ্যে ৬৮জন নারী এবং ৪১ জন শিশু।

 

সাতটি জাতীয় দৈনিক, ৫টি অনলাইন নিউজ পোর্টাল এবং ইলেক্ট্রনিক গণমাধ্যম থেকে সংগ্রহ করা তথ্যের ভিত্তিতে প্রতিবেদনটি প্রস্তুত করা হয় বলে জানিয়েছে সংগঠনটি।

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এর মধ্যে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় বেশি প্রাণহানি ঘটেছে। ১১৯টি মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় ১৩২ জন নিহত হয়েছেন। যা মোট নিহতের ৩৪ দশমিক ৪৬ শতাংশ। মোটরসাইকেল দুর্ঘটনার হার ৩৭ দশমিক ৮৯ শতাংশ।

এসব দুর্ঘটনায় ৯৭ জন পথচারী নিহত হয়েছেন, যা মোট নিহতের ২৫ দশমিক ৩২ শতাংশ। যানবাহনের চালক ও সহকারী নিহত হয়েছেন ৪২ জন, অর্থাৎ ১০ দশমিক ৯৬ শতাংশ।

এই সময়ে ৫টি নৌ-দুর্ঘটনায় ১১ জন নিহত ও ৬ জন আহত হয়েছেন। সাগরে মাছ ধরার একটি নৌকা ডুবে ২২ জেলে নিখোঁজ হয়েছেন। ১৩টি রেল দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন ১৭ জন।

এছাড়াও দুর্ঘটনায় বাস যাত্রী ৩৩, ট্রাক যাত্রী ৯, পিকআপ যাত্রী ৫, মাইক্রোবাস যাত্রী ৬, প্রাইভেটকার যাত্রী ৮, জীপ ১, ট্রলি যাত্রী ২, সিএনজি যাত্রী ১১, ইজিবাইক-অটোরিকশা যাত্রী ৪৯, নসিমন-ভটভটি, মাহেন্দ্র যাত্রী ১৭, লেগুনা-মিশুক যাত্রী ৩, বাই-সাইকেল আরোহী ৫, রিকশা, রিকশাভ্যান ৪ এবং ইটভাঙ্গার গাড়ির একজন শ্রমিক নিহত হয়েছেন।

রোড সেফটি ফাউন্ডেশনের পর্যবেক্ষণ ও বিশ্লেষণ বলছে: দুর্ঘটনাগুলোর মধ্যে ১১৯টি জাতীয় মহাসড়কে, ১০৩টি আঞ্চলিক সড়কে, ৫২টি গ্রামীণ সড়কে এবং ৪০টি শহরের সড়কে সংঘটিত হয়েছে।

দুর্ঘটনার মধ্যে ৮১টি মুখোমুখি সংঘর্ষ, ৬৪টি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে, ১০৯টি পথচারীকে চাপা-ধাক্কা দেওয়া, ৫২টি যানবাহনের পেছনে আঘাত করা এবং ৮টি অন্যান্য কারণে ঘটেছে।

সেপ্টেম্বরের তুলনায় অক্টোবরে সড়ক দুর্ঘটনা ও প্রাণহানি উভয়ই বেড়েছে। সেপ্টেম্বরে ২৭৩টি দুর্ঘটনায় ৩০৪ জন প্রাণ হারিয়েছিলেন।

Source link

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here